Reading Time: 2 minutes

বন্ধুত্ব, পরিবার এবং খাবার : এই তিন বিষয়ই হলো যেকোনো মুসলিম পরিবারের জন্য রমজানের মূল অঙ্গ। সুহুর এবং ইফতারের সময় খাবার এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা  পালন করে থাকে। তবে এই সময় আপনি নিজের শরীরের সুস্থ্যতার জন্য কিভাবে মিল প্ল্যানিং করবেন? আসুন জানা যাক।

 সাধারণত ইফতারের সময় প্রচুর পরিমাণে খাওয়া দাওয়া করা হয়। মিষ্টি, ক্রিম জাতীয় খাবার, ভাজাভুজি কোনোটিই বাদ যায়েনা। তবে এটি পরবর্তী কালে শরীরের জন্য অনেক ক্ষতিকারক হয়ে উঠতে পারে। তাই এই সময়ে সকলকেই সুষম এবং স্বাস্থ্যকর খাদ্য গ্রহণ করা উচিত।

ইফতারের সাথে উপোস ভাঙ্গা

পরম্পরা অনুযায়ী, জল এবং খেজুর খেয়ে এই উপবাস ভাঙা হয়। খেজুরে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন এবং মিনারেলস আছে এবং এতে উচ্চ পরিমানে ফাইবার(1) এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকে। খেজুরে প্রাকৃতিক শর্করা ‘ ফ্রুকটস’  থাকায় এটি শরীরকে প্রয়োজনীয় শক্তি প্রদান করতে পারে। তবে খেজুর ছাড়াও আপনি অন্যান্য শুকনো ফল, যেমন অ্যাপ্রিকট, ডুমুর, কিশমিশ বা তাজা যেকোনো ফল খেতে পারেন।

জল খান! এই সময় জল খাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সারাদিন নির্জলা উপোশের ফলে শরীরে জলের পরিমাণ কমে যায়। তবে এই সময় আপনি জল ছাড়াও, দুধ বা জুস  খেতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন তাতে যেনো চিনি মেলানো না থাকে।

অতিরিক্ত খাওয়া কমাতে এবং বেশিক্ষণ পেট ভর্তি রাখতে সুপ খুবই উপযোগী। ডাল, সবজি, মাংস দিয়ে তৈরি সুপ এই সময়ের জন্য খুবই ভালো খাবার। এছাড়াও আছে স্যালাড। তবে আপনি যদি মাংস খেতেই চান তাহলে সেটিকে ভাজা বা কষানোর বদলে ভাপিয়ে ,গ্রিল করে বা সেদ্ধ করে খান।

আপনার ইফতারের খাবারে যাতে প্রচুর পরিমাণে সবজি এবং শস্য থাকে তা নিশ্চিত করুন, এগুলি শরীরকে প্রয়োজনীয় ভিটামিন, মিনারেল, শক্তি এবং ফাইবার দেবে। ভাজা খাবার এড়িয়ে চলুন। অতিরিক্ত পরিমাণ খাবার খাবেন না, খাবারের পরিমাণ নজরে রাখুন এবং মনোযোগ সহকারে খান।

সূহুর বাদ দেবেন না

সূর্যোদয়ের আগের খাবারটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ, এটি আপনার শরীরকে পুরো দিনের জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি প্রদান করবে। সূহরের সময় প্রচুর পরিমাণে পানীয় গ্রহণ করুন। এছাড়াও, উচ্চ জল সম্পন্ন ফল যেমন – তরমুজ খান।  ভাত জাতীয় স্টার্চ আপনাকে পুরো দিনের জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি প্রদান করবে। ওটস, উচ্চ ফাইবার সম্পন্ন খাদ্য এবং শস্য লম্বা সময়ের জন্য আপনার পেট ভর্তি রাখবে। প্রোটিন এবং ক্যালশিয়াম এ ভরপুর দই বা ইয়গর্টও এই সময়ে খেতে পারেন।

আমরা কামনা করি আপনার রমজান স্বাস্থ্যকর এবং আনন্দময় হোক।


সূত্র: 

  1. Rahmani AH, Aly SM, Ali H, Babiker AY, Srikar S, Khan AA. Therapeutic effects of date fruits (Phoenix dactylifera) in the prevention of diseases via modulation of anti-inflammatory, antioxidant and antitumor activity. Int J Clin Exp Med. 2014;7(3):483–491. 2014.

Loved this article? Don't forget to share it!

Disclaimer: The information provided in this article is for patient awareness only. This has been written by qualified experts and scientifically validated by them. Wellthy or it’s partners/subsidiaries shall not be responsible for the content provided by these experts. This article is not a replacement for a doctor’s advice. Please always check with your doctor before trying anything suggested on this article/website.