High Cholesterol and Ghee
Reading Time: 2 minutes

ভারতবর্ষে উচ্চ কোলেস্টেরল খুব বিরল ব্যাপার নয়। কিছু আধুনিক গবেষণায় জানা গেছে যে ভারতের  জনসংখ্যার ক্ষেত্রে(1) শহরে এর মান 25%-30% আর গ্রামে 15%-20%। এটির জন্য মূলত জিন গত সমস্যা, শারীরিক কার্যকলাপের অভাব এবং অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস দায়ী। যদি সঠিক চিকিৎসা পদ্ধতির মধ্যে থাকা যায় তবে উচ্চ কোলেস্টরেল বিরাট কোনো শারীরিক বিপর্যয় নয়।কিন্তু এই অসুবিধে যদি নজরে না এনে দীর্ঘদিন চলতে থাকে তবে তা নিশ্চিত শারীরিক বিপর্যয় আনবে। আধুনিক গবেষণায় বোঝা গেছে যে প্রতি 40 পয়েন্টস এ কোলেস্টরেল বেড়ে যায় যা কিনা কম বয়সী লোকের মধ্যে হৃদরোগে মৃত্যুর হার বাড়িয়ে দেয়।(2)

 ওখানে দুটি ধরনের কোলেস্টরেল দেখতে পাওয়া যায় লো ডেন্সিটি লাইপোপ্রোটিন(LDL) যাকে খারাপ বা ‘bad’ কলেস্টোরেল এবং হাই ডেন্সিটি লাইপো প্রোটিন(HDL) বা ‘good’ কোলেস্টেরল বলে। এই bad কোলেস্টেরল রক্ত ধমনীতে জমে শারীরিক ভয়ঙ্কর অসুস্থতার কারণ তৈরি করে। সুতরাং শরীরের রক্তে এই বাজে এবং ভালো কোলেস্টরেলের  একটা ব্যালান্স বজায় রাখা অত্যন্ত দরকার। দেখা গেছে যত বয়স বাড়তে থাকে তত এই কোলেস্টরেল এর সমস্যা বাড়ে এবং মানুষের হৃদরোগের সম্ভাবনা ও বাড়তে থাকে।(3)

আমাদের ভারতীয় খাবারে সাধারণভাবে ঘিয়ের ব্যবহার খুব বেশি। যা খাবার কে সুস্বাদুও করে। এটাও লক্ষ করা যায় যে যারা মিষ্টি খেতে ভালোবাসেন তাদের জন্য মিষ্টিকে আরো সুস্বাদু করতে ঘি ব্যবহার করা হয়। এবার প্রশ্ন হলো যাদের উচ্চ কোলেস্টরেল মাত্রা তাদের জন্য ঘি কতটা উপকারী?

এই প্রশ্নের উত্তরে জানার আগেই এটা জানতে হবে যে দেশী ঘি বা গরুর দুধের ঘি যাকে আমরা ক্লাসিফাইড বাটার বলি তাতে ফ্যাট এর পরিমাণ অনেকটাই বেশি যা কিনা রক্তে কোলেস্টরেল এর মাত্রা অনেকটা বাড়িয়ে দেয়। সুতরাং ঘি খাওয়া খুব উপকারী নয়। তবে খাদ্য বিশারদরা বলেন পুষ্টিকর খাবার যদি হয় তবে তার সাথে এক চামচ ঘি খাওয়া যেতে পারে। বা খাবারের মধ্যে যথেষ্ট পরিমাণ এ যদি সবজি, শস্যদানা, বা বিনস থাকে তাতে একটু ঘি খাওয়া ক্ষতিকর নয়।(4) তবে আমাদের খাবার এর মধ্যে অন্য স্যাচুরেটেড ফ্যাট যেমন কানোলা তেল, অলিভ তেল বা বাদাম তেল ( আলমন্ড বা ওয়ালনাট) ব্যবহার করা কিন্তু সেই ক্ষেত্রে উপকারী।

এ ছাড়া খাবারে ওমেগা-3 আছে এমন মাছ যেমন টুনা, মাকারেল, বা সলমন মাছ খাওয়া যেতে পারে যা হৃদয় কে সুস্থ রাখে।

উচ্চ কস্টোরেল এর জন্য ঘি খাওয়া বন্ধ রাখার কোনো কারণ নেই। শুধু মনে রাখতে হবে যে সেটি যেন কোনো পুষ্টিকর খাবারের সাথে বা খাদ্যতালিকাতে যুক্ত করে খাওয়া হচ্ছে।

খাবারের সন্তুলান বজায় রেখে খাদ্যতালিকা অনুসরণ করুন। সুস্থ স্বাদু খাবার গ্রহণ করুন।

সূত্র: 

  1. Gupta R, Rao RS, Misra A, Sharma SK. Recent trends in epidemiology of dyslipidemias in India. Indian Heart J. 2017 May-Jun;69(3):382-392. DOI: 10.1016/j.ihj.2017.02.020.
  2. Indian Heart Association. Cholesterol and South Asians. The balance between good and bad cholesterol is an important contributor to cardiovascular and stroke risk [Internet]. [cited 2019 Dec 9]. Available from: http://indianheartassociation.org/cholesterol-and-south-asians/.
  3. Scientific India. Cholesterol and Indians [Internet]. [cited 2019 Dec 9]. Available from: http://www.scind.org/572/Health/cholesterol-and-indians.html.
  4. Consumer Reports. Is ghee good for you? [Internet]. [cited 2019 Dec 9]. Available from: https://www.consumerreports.org/fats/is-ghee-good-for-you/.

Loved this article? Don't forget to share it!

Disclaimer: The information provided in this article is for patient awareness only. This has been written by qualified experts and scientifically validated by them. Wellthy or it’s partners/subsidiaries shall not be responsible for the content provided by these experts. This article is not a replacement for a doctor’s advice. Please always check with your doctor before trying anything suggested on this article/website.