heart attack patient healthy tips
Reading Time: 2 minutes

হৃদরোগাক্রমণ থেকে সেরে ওঠার পরে বেঁচে থাকা আবেগগতভাবে প্রায় শক্তিহীন হয়ে যাওয়া হতে পারে, তবে এত বড়ো রোগের সঙ্গে লড়াই করে ফিরে আসার পর আপনার স্বাস্থ্যকে সবচেয়ে স্থিতিশীল অবস্থায় রাখা এবং আরেকটি একটি হৃদরোগাক্রমণ প্রতিরোধ করাই আপনার অগ্রাধিকার হওয়া উচিত। AIIMS-এর কার্ডিওলজিস্ট ডাঃ সন্দীপ মিশ্রের মতে, বেশিরভাগ লোক প্রথম হৃদরোগাক্রমণ হওয়ার পরে, তাদের জীবনযাপনে অল্প কিছু স্বাস্থ্যকর পন্থা বা বদল করেই এক রকম সুখী, স্বাস্থ্যকর ও উন্নত জীবনযাপন করতে পারে।

ডঃ মিশ্র হৃদরোগাক্রমণের পরে স্বাস্থ্যকর জীবন যাপনের জন্য এই সংক্ষিপ্ত নির্দেশিকায় কয়েকটি উপায় যুক্ত করেছেন।

1. আপনার ওষুধগুলি সময় মতো ও মাত্রানুসারে সেবন করা:

“প্রাথমিকভাবে, আপনার ডাক্তার রক্ত ​​পাতলা করার কিছু নির্দিষ্ট ওষুধ লিখে দিতে পারেন যা রক্তনালীতে রক্ত জমাট বাঁধা রোধ করবে। আপনার প্রেসক্রিপশন সম্পর্কে সচেতন হন এবং যত্ন সহকারে এটি অনুসরণ করুন”, তিনি বলেন। আপনার পরিবারের সদস্যদেরও আপনার ওষুধের উপর নজর রাখতে বলুন। আপনার ফলো-আপ অ্যাপয়েন্টমেন্টগুলি এড়িয়ে যাবেন না, কারণ এগুলি আপনাকে আপনার হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্যের আরও ভাল উপায়ে বাতলাতে সহায়তা করবে।

2. স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া:

হৃদরোগাক্রমণের তিনটি প্রধান ঝুঁকির কারণ (ডায়াবেটিস, উচ্চ-মাত্রার কোলেস্টেরল এবং উচ্চ-মাত্রার রক্তচাপ) অস্বাস্থ্যকর আর দুর্বল খাদ্যাভাস থেকে উদ্ভূত। ডাঃ মিশ্রর পরামর্শ অনুসারে এখানে কিছু ডায়েট পরিবর্তনের হদিশ রয়েছে:

  • উচ্চ-মাত্রার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে লবণের পরিমাণ কমিয়ে দিন
  • ডায়াবেটিস এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে আপনার ডায়েট থেকে মিষ্টি, চর্বিযুক্ত এবং প্রক্রিয়াজাত খাবারগুলি একেবারে বাদ দিন
  • শাকসবজি, ফল, বাদাম, লেবু এবং গোটা দানার শস্য নিয়মিত খাদ্যে যোগ করুন
  • বনস্পতি ঘি এবং দেশি ঘি খাওয়া সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করুন
  • আপনার ডায়েটে তেলের পরিমাণ কমিয়ে দিন। দুটি ভিন্ন ধরনের তেল ব্যবহার করা ভালো হবে
  • রেড মিট জাতীয় খাবার বাদ দিন। ওমেগা -3 ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ মাছগুলি আপনি খাদ্য-তালিকায় রাখতে পারেন।

3. সঠিক উপায়ে ব্যায়াম অনুশীলন করা:

কিছু রোগী হৃদরোগাক্রমণের পরে কোনওরকমভাবে শারীরিক ক্রিয়াকলাপ করতে চান না, সম্ভবত আরেকটি হৃদরোগাক্রমণ ভোগের ভয়ে। তবে, এ্টা ঠিক উচিত নয়। মনে রাখবেন যে বিছানায় বসে-শুয়ে সম্পূর্ণ বিশ্রাম কেবল আপনার সেরে ওঠার পদ্ধতিটিতে আরও বিলম্বই করিয়ে চলেছে। অন্যদিকে, অতিরিক্ত মাত্রায় ব্যায়াম অনুশীলন এবং পরিশ্রম করাও এড়ানো উচিত। অনুশীলন শুরু করার আগে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন। ভারোত্তোলন এবং শরীরচর্চা জাতীয় অনুশীলনগুলি এড়িয়ে চলুন। আপনি কিছু প্রসারিতকরণ জাতীয় অনুশীলনের পাশাপাশি হাঁটাচলা এবং সাঁতার কাটার মতো সাধারণ অনুশীলন দিয়ে শুরু করতে পারেন”, ডাঃ মিশ্র যোগ করেন।

4. অ্যালকোহল পান এড়ানো:

ডাঃ মিশ্রের মতে, পশ্চিমদেশের জনগোষ্ঠীতে গবেষণা চালানো হয়েছে যে দেশগুলি মাঝারি মাপে অ্যালকোহল পান হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্য ভাল বলে মনে করে; তবে ভারতীয় জনসংখ্যার জন্য একই ধরনের তেমন কোনও সমীক্ষা হয়নি। সুতরাং, আপনার হৃদযন্ত্রের পক্ষে সেটা ভালো কিনা তা আপনার ডাক্তারের সাথে আলোচনা করাই ভালো হবে।

5. তামাক সেবন ছেড়ে দেওয়া:

হৃদরোগাক্রমণের পরে ধূমপান করলে তা আপনাকে শুধুমাত্র আরেকটি হৃদরোগাক্রমণের ঝুঁকিতে ফেলতে চলেছে, ডাঃ মিশ্র পরামর্শ দিয়েছেন। শুধু ধূমপান নয়, যে কোনও রকমের তামাক সেবন বন্ধ করা উচিত। এছাড়াও, এমন জায়গাগুলি থেকে দূরে থাকুন যেখানে আপনি অপ্রতিরোধকভাবেও অন্য কারোর ধূমে শ্বাস নিতে বাধ্য হতে পারেন, কারণ এটি আপনার হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্য ধূমপানের মতোই সমানভাবে বিপজ্জনক হতে পারে।

6. মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে:

ডঃ মিশ্র হৃদরোগাক্রমণের পরে সেরে ওঠা এবং বেঁচে থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার সময়টা কীভাবে আপনার মানসিক সুস্থতাকে প্রভাবিত করতে পারে সে সম্পর্কেও কথা বলেছেন, যা ঘটা একেবারেই স্বাভাবিক। এমন সময়ে কারোর বা খিদে বোধ, উদ্বেগ ও সংশয়, সামাজিক মেলামেশা থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়া, সক্রিয় হলেই শরীর খারাপ হবে এই ভয় এবং এমনকী হতাশারও জন্ম দেয়। এই সমস্যাগুলি উপেক্ষা করবেন না এবং সঠিক সময়ে সহায়তা নিতে রাজি হতে দেরি করবেন না। আপনার ডাক্তারের সাথে আপনার আবেগগত পরিস্থিতি ও মানসিক অবস্থা নিয়ে আলোচনা করুন এবং পুনর্বাসনের সুবিধা নিতে কাউন্সেলিং সেশনের জন্যও রাজি হয়ে যান।

Loved this article? Don't forget to share it!

Disclaimer: The information provided in this article is for patient awareness only. This has been written by qualified experts and scientifically validated by them. Wellthy or it’s partners/subsidiaries shall not be responsible for the content provided by these experts. This article is not a replacement for a doctor’s advice. Please always check with your doctor before trying anything suggested on this article/website.