Reading Time: 3 minutes

অশ্বিনী এস কানাড়ে, রেজিস্টার্ড ডায়েটিশান এবং প্রত্যয়িত বিশিষ্ট ডায়াবেটিস শিক্ষাবিদ তাঁর 17 বছরের অভিজ্ঞতা সহ এটির বিশেষজ্ঞপর্যালোচনা করেছেন

আপনি প্রতিদিন ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কিছুটা কাজ করলে এটি নিয়ন্ত্রণে আনা তেমন কিছু কঠিন নয়। রোগটা আপনার আয়ত্ত্বের বাইরে চলে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করার বদলে, আপনার রোজকার জীবনে ছোটো-খাটো বদল করলে তাতে আপনার রক্তের শর্করার মাত্রা কমে আসে এবং অবশেষে ঘটনা ক্রমে এটি বিপরীতমুখী অবস্থান করে। এবং সত্যিই আপনি এই পরিবর্তন দেখতে চাইলে, আপনার স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য জীবনযাত্রায় কিছু বদল করার প্রতিশ্রুতি পালন করা শুরু করুন।

ডাঃ মোহনস ডায়াবেটিস স্পেশালিটি সেন্টারের চেয়ারম্যান, ডাঃ ভি মোহন, আমাদের 5টি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যেগুলি, সকল ডায়াবেটিস রোগীই কিছুটা ইচ্ছাশক্তি ও উৎসর্জন দিয়ে পূরণ করতে পারে।

  1. আপনার প্রতিবারের আহারের উপকরণ স্বাস্থ্যকর হোক

আপনার স্বাস্থ্যের জন্য, নিজেকে প্রতিশ্রুতি দিন যে আপনি শুধুই স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে শুরু করবেন। এই উদ্দেশ্য পূরণে এক রকম পরিকল্পিত ও সংগঠিত পদ্ধতির সাহায্য নিন।

দৈনিক, সাপ্তাহিক এবং মাসিক হিসাবে আপনার প্রতিবারের আহারের উপকরণ এবং পদ্ধতিগত পরিকল্পনাগুলি প্রস্তুত করতে আপনাকে সহায়তা করে এমন বেশ কয়েকটি ওয়েবসাইট রয়েছে। তারপরে এমন ওয়েবসাইটও আছে যেখানে এরমধ্যেই উপরোক্ত পরিকল্পনাগুলি করা আছে, এবং আপনাকে শুধু সেইগুলি আপনার জন্য অর্ডার করতে হবে।

আপনার জন্য কাজ করে এমন পদ্ধতির সন্ধান করুন এবং বিনা দ্বিধায় এটির বাস্তবায়ন করুন।

এখানে কিছু স্বাস্থ্যকর, সুস্বাদু এবং ডায়াবেটিস-বান্ধব সকালের জলখাবার এবং দুপুরের আহারের রান্নার পদ্ধতি দেওয়া আছে।

2. আপনার চেয়ার-এর সঙ্গে বন্ধুত্ব বিচ্ছেদ করুন

আমাদের আধুনিক জীবনযাত্রায় আমরা ততোটা আর হাঁটছি না, যতটা আগে হাঁটা-চলা করতাম। সুবিধাজনকভাবে এদিক-সেদিক যেতে আজকাল সবসময়ে ভাড়া-গাড়ি এবং রিক্সা হাতের কাছেই আছে। বাড়িতে বা কর্মক্ষেত্রে যখন থাকি, আমরা সবসময় নিজেদের অধিকাংশ সময়েই বসে থাকতেই দেখি।

কিন্তু এখন, আপনার চেয়ার-এ বসা একেবারেই বন্ধ করতে প্রতিশ্রুত হোন। সব সময় বসে থাকার পরিবর্তে হেঁটে-চলে বেড়াবার জন্যও কিছু না কিছু অজুহাত খুঁজে নিন: ফোন কল করার সময় হাঁটুন, সর্বদা সিঁড়িগুলি দিয়েই উঠুন, শুধু হাঁটার জন্য প্রতিদিন 10 মিনিটের কাজের বিরতি নিন এবং হেঁটে সময়টা কাজে লাগান।

কীভাবে ডায়াবেটিক রোগীরা নিরাপদে শরীর-চর্চা করতে পারেন সে বিষয়ে এখানে কিছু উপায়ের বিষয়ে বলা হল।

  1. সঠিকভাবে ঔষধ সেবন করুন

আমরা ডায়াবেটিসে ওষুধের সঠিক মাত্রা গ্রহণের গুরুত্বের বিষয়ে কোনোভাবেই একটি কথাও বাড়িয়ে বলতে পারছি না। অতয়েব সদাই ওষুধ সঠিক সময়ে সেবন করা উচিত।

আপনি খাবার খাওয়ার আগে বা পরে আপনার ওষুধ সেবন বিলম্বিত করলে, এটা আপনার রক্ত​-শর্করাকে সঠিকভাবে প্রভাবিত করতে পারবে না। খাবারের পরে খুব দেরি করে ওষুধ সেবন করলে দেখবেন, আপনার রক্ত-শর্করার মাত্রা এরমধ্যেই বেড়ে গেছে এবং আপনার ওষুধ যথাযথভাবে কাজ করতে পারছে না।

সুতরাং ওষুধ সেবনের মাত্রা এবং সময় উভয়েই গুরুত্বপূর্ণ।

  1. পায়ের পাতার পরিচর্যা করুন

আপনার রক্তে গ্লুকোজের প্রতি নজর রাখা, আপনার রক্ত-চাপ এবং কোলেস্টেরল-এর পরিমাণ পর্যবেক্ষণ করা, এবং আপনার ওজন নিয়ন্ত্রণ আপনার নিয়মিত ডায়াবেটিস-এর রুটিন-পরিচর্যার অংশ। কিন্তু এই সব করতে গিয়ে, আপনি ডায়াবেটিস পরিচর্যার একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ দিকেই নজর রাখতে ভুলে যাবেন: সেটি হল আপনার পায়ের পাতা।

ডায়াবেটিস রোগে, সংক্রমণ সম্ভাবনা খুবই বেশি এবং এমনকি ছোটো-খাটো কাটা-ছেঁড়াতেও সংক্রমণ ঘটে। এবং সাধারণতঃ আমাদের পায়ের পাতা সবচেয়ে বেশি আঘাত-প্রবণ হয়ে থাকে, নিয়মিত আপনার পায়ের পাতার প্রতি নজর রাখা এবং খুঁটিয়ে পরীক্ষা করা আবশ্যক। আপনি এতে কোন ছোটো ক্ষত বা আঘাত দেখতে পেলেই, পচন ধরা বা আরও ক্ষতিকর পায়ের পাতা চিকিৎসার মাধ্যমে বাদ দেওয়া বা অন্য কোনো বিকৃতির মতো জটিলতা এড়াতে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সঠিকভাবে সেই ক্ষত বা আঘাতের চিকিৎসা করুন!

5. আপনার কিডনির প্রতি যত্ন নিন

ডায়াবেটিস যথাযথভাবে নিয়ন্ত্রিত না হলে কিডনি রোগ হওয়া (ডায়াবেটিক নেফ্রোপ্যাথি বলা হয়) এমন নানা জটিলতাগুলির মধ্যে একটি। কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হলে, এই অঙ্গটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজটি করতে অক্ষম হয়ে পড়ে, যার ফলে আপনার শরীর থেকে বর্জ্য এবং অতিরিক্ত তরল পদার্থ স্বাভাবিকভাবে আর শরীর থেকে অপসারিত হতে পারে না।

এটি এমন একটি গুরুতর পরিস্থিতি যে অবস্থায় ডায়ালিসিস করার প্রয়োজন এবং শেষ অবধি কিডনি প্রতিস্থাপনেরও প্রয়োজন হতে পারে। এবং এই অবস্থা থেকে নিরাময় লাভের খরচও খুব বেশি।

সঠিকভাবে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে এবং নিয়মিত ডাক্তারের কাছে গিয়ে চেক-আপগুলিতে সময় ও অর্থ বিনিয়োগ করে, এই ধরনের জটিলতাগুলি এড়িয়ে চলতে পারেন। ডায়াবেটিস সম্পর্কিত জটিলতাগুলির আটটি প্রাথমিক লক্ষণগুলি পড়ুন যা আপনি প্রথম থেকেই এড়িয়ে চলতে পারেন।

নিজেকেই এই 5টি প্রতিশ্রুতি পালনের জন্য তৈরি করুন এবং একটি সুখী, সুস্থ, এবং স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন শুরু করুন!

সম্পাদকঃ আফশান খান

ছবি-সৌজন্যে: Pixabay

 

Loved this article? Don't forget to share it!

Disclaimer: The information provided in this article is for patient awareness only. This has been written by qualified experts and scientifically validated by them. Wellthy or it’s partners/subsidiaries shall not be responsible for the content provided by these experts. This article is not a replacement for a doctor’s advice. Please always check with your doctor before trying anything suggested on this article/website.