Reading Time: 3 minutes

অশ্বিনী এস কানাড়ে, রেজিস্টার্ড ডায়েটিশান এবং প্রত্যয়িত ও বিশিষ্ট ডায়াবেটিস শিক্ষাবিদ তাঁর 17 বছরের অভিজ্ঞতা সহ এটির বিশেষজ্ঞপর্যালোচনা করেছেন

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে এমনকী ডায়াবেটিস প্রতিরোধের বিষয়ে আলোচনাতেও প্রথমেই একজন ডাক্তারের কথাই আসে যখন প্রকৃতপক্ষে তিনিই আপনার সেরা পথ-নির্দেশক হতে পারেন। সুতরাং, আপনার ডায়াবেটিস ডাক্তারের কাছ থেকে সেরা উপদেশ আর সেরা চিকিৎসা পেতে যা আপনার জন্য সঠিকভাবে কাজ করে এমন একটি সম্পর্ক তাঁর সঙ্গে গড়ে তুলতে প্রস্তুত হোন।

ব্যাঙ্গালোরের ব্যানারঘাট্টা রোডে ফোর্টিস হসপিটালস-এর, এন্ডোক্রিনোলজিস্ট এবং ডায়াবেটোলজিস্ট কনসালটেন্ট চিকিৎসক ডাঃ মনজুনাথ মালিগে, আমাদের 6টি মনে রাখার মতো উপদেশ দেন যা আপনার পরবর্তী ডায়াবেটোলজিস্ট ডাক্তারের সঙ্গে দেখা করার সময়ে প্রভূত উপকারে লাগবে।

  1. আপনার রক্ত-শর্করা সম্বন্ধীয় রেকর্ড সঙ্গে আনুন

শেষবার আপনার ডাক্তারের সঙ্গে দেখা হওয়ার পরে আপনার রক্তের শর্করার মাত্রা এখন কী অবস্থায় রয়েছে তা আপনার ডাক্তারকে বুঝতে হবে, তাই তাঁকে রিপোর্ট দেখান। এই ভাবে, প্রয়োজন হলে, আপনার চিকিৎসার পরিবর্তন সম্পর্কে তিনি আরও উপযোগী সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন।

তাঁকে এই মতো সাহায্য করতে, বাড়িতে আপনার রক্ত ​​শর্করার মাত্রা তদারকি করা শুরু করুন। একটি গ্লুকোমিটার ব্যবহার করাই হল এটি করার সবচেয়ে নিরাপদ, দ্রুততম এবং সবচেয়ে সুবিধাজনক উপায়। আপনার রক্তের শর্করার মাত্রা সর্বোচ্চ হিসাবে দিনে দুইবার বা একদিন অন্তর একবার পরীক্ষা করা উচিত। আপনার রক্ত ​​শর্করার প্যাটার্নের ট্র্যাক রাখতে, আপনার গ্লুকোমিটার থেকে পাওয়া ফলাফল যেখানে লিখতে পারেন এমন একটি জার্নাল বজায় রাখুন। আপনার ডাক্তার পরবর্তী অ্যাপয়েন্টমেন্ট-এ এইটা দেখলে, তিনি আপনার রক্ত-শর্করার মাত্রা খুব বেশি বা খুব কম হচ্ছে কেন তা বিচার করতে পারবেন।

কীভাবে সঠিকভাবে একটি গ্লুকোমিটার ব্যবহার করতে হয় তা জানতে আমাদের বিশেষজ্ঞ নির্দেশিকা পড়ুন।

  1. আপনার সব প্রশ্নের একটি তালিকা তৈরি করুন

আপনি ডাক্তারের কাছে পরামর্শের জন্য যাওয়ার আগে, আপনি এইবার ডাক্তারকে জিজ্ঞাসা করতে চান এমন সব প্রশ্নের তালিকা তৈরি করতে কিছুটা সময় নিন। এটি আপনাকে প্রশ্নগুলির মধ্যে যে কোনও একটিও যে ভুলবেন না তা নিশ্চিত করতে সহায়তা করবে। এখানে আপনার জিজ্ঞাসা করার মতো কয়েকটি প্রশ্ন রয়েছে যা আপনি আপনার প্রশ্নাবলীতে রাখতে পারেন:

  • আমার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ কীভাবে করব? আমাকে কি কোনও ভাবে আমার ডায়েট বা ব্যায়াম করার ধরন পরিবর্তন করতে হবে?
  • উচ্চ-মাত্রার রক্ত-চাপ, কিডনি, হৃদপিণ্ড বা চোখের ক্ষতি হওয়ার মতো ডায়াবেটিস সম্পর্কিত জটিলতাগুলির কোনও লক্ষণ কি আমারও আছে?
  • আমি কি ডায়াবেটিস-সংক্রান্ত অন্যান্য জটিলতা হওয়ার মতো কোনো রকম সম্ভাব্যতায় আছি? যদি তাই হয়, তাহলে কীভাবে কত তাড়াতাড়ি এই সমস্যার মোকাবিলা করা যেতে পারে।
  • আমার কি ওষুধগুলির পরিবর্তন করতে হবে? (আপনার ওষুধগুলিতে কোনও পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া দেখা দিলে তবেই এটি জিজ্ঞাসা করুন)
  1. ডাক্তারের সঙ্গে খোলাখুলিভাবে আপনার লক্ষণগুলি নিয়ে আলোচনা করুন

অ্যাপয়েন্টমেন্টগুলির মধ্যেকার সময়ে, আপনি যে কোনও অস্বাভাবিক উপসর্গগুলির প্রতি লক্ষ্য রেখে তা লিখে রাখবেন। আপনি যখনই অস্বাভাবিক উপসর্গগুলি সবচেয়ে বেশি বোধ করেন তখন বিশেষভাবে সেই সময়টি লক্ষ্য করুন এবং এগুলি আপনার পক্ষে কতটা মারাত্মক হয় সেই বিষয়েও একটি ট্যাব রাখুন। এটি পুরোপুরিভাবে আপনার যখন যা হয় তাই লেখাই উচিত একটুও বাড়িয়ে বা কমিয়ে লিখবেন না, এবং আপনার ডাক্তারের সঙ্গে এই উপসর্গগুলি নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, এমনকী যেগুলি অপ্রাসঙ্গিক বলে মনে হয় সেগুলিও বলবেন। এতে আপনার ডাক্তার সঠিকভাবে আপনার রোগাবস্থার নির্ণয় এবং আরও ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা করে আপনাকে সাহায্য করতে পারেন।

ডায়াবেটিস সম্পর্কিত লক্ষণগুলির প্রথম আটটি লক্ষণগুলি পড়ুন যা আপনি খেয়াল না করতেও পারেন।

  1. আপনার ডায়াবেটিস জনিত ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে আপনার চাহিদা এবং লক্ষ্য আপনার ডাক্তারকে স্পষ্টভাবে বুঝিয়ে বলুন

ডায়াবেটিক্ রোগীদের বিশ্লেষণ করা ও জানা দরকার যে কীভাবে তাদের জীবনযাপন এবং তাদের ডায়াবেটিস রোগটি একে অপরকে প্রভাবিত করে। এবং তারপর ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে তাদের জীবনযাপন পদ্ধতির পরিবর্তন করতে কাজ শুরু করতে হয়। আপনার নিয়ন্ত্রণের পরিকল্পনাটিতে আপনার জীবনযাপনে কঠোর পরিবর্তন করার প্রয়োজন হলে, আপনি এতে টিকে থাকতে পারবেন না।

তাই আপনার ডাক্তারকে জিজ্ঞেস করে শুরু করুন আপনার জীবনযাপনে কোন বদল কীভাবে করলে তা সুষ্ঠুভাবেই চলবে এবং কী কী একেবারেই করা যাবে না। জীবনযাপনের পদ্ধতিগত পরিবর্তনগুলি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের ভিত্তি এবং আপনার স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য পার্থক্য তৈরি করতে পারে।

এছাড়াও, আপনার রোজকার জীবনযাপনে হামেশাই মুখোমুখি হতে পারেন এমন ছোট্ট সমস্যাগুলির বিষয়ে আপনার ডাক্তারকে জিজ্ঞাসা করুন যেমন আপনার ব্যায়াম যে মুহূর্তে আপনি অনুশীলন শুরু করেন আপনার পায়ের পাতায় জ্বালা করে এবং কেন করে, আপনার ইনস্যুলিনের স্ব-ইনজেকশনের কোনো বিকল্প ব্যবস্থা আছে কিনা এবং কেন প্রতি 2-3 ঘন্টার মধ্যেই আপনার খুব খিদে পেয়ে যায়। এই রকম এবং আরও অনেক সমস্যা আছে যা শুধুমাত্র আপনার ডাক্তারের সহায়তায় সমাধান করা যেতে পারে।

  1. ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের সেরা সরঞ্জাম সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করুন

বিভিন্ন সরঞ্জাম রয়েছে যা ব্যবহারে আপনি আপনার ডায়াবেটিস রোগের নিয়ন্ত্রণ সহজে করতে পারেন। এদের মধ্যে কয়েকটি উদাহরণ হল ডায়াবেটিস ডায়েট চার্ট, ব্যায়াম চার্ট, রক্তের গ্লুকোজের তদারকি চার্ট, ইনসুলিন ইনজেকশন নেওয়ার কৌশল চার্ট, রক্ত-​​শর্করার নিম্ন-মাত্রার চার্ট এবং হৃদরোগের ঝুঁকি সামলানোর চার্ট।

তথ্য ওভারলোড করে অযথা নিজের বিরক্তি না বাড়িয়ে, আপনার ডাক্তারদের জিজ্ঞাসা করুন যে কোনটি গুরুত্বপূর্ণ এবং আপনার প্রতিদিনের জীবনে কোনগুলি বেশি দরকারী হবে।

  1. আপনার সন্তানদের মধ্যে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি থাকলে তা অনুসন্ধান করুন

আপনার এটি রয়েছে শুধু সেই কারণে, আপনার সন্তানদেরও যে এটা হবেই এর কোন মানে নেই। কেবলমাত্র যেসব বাচ্চারা মোটা, খুব সামান্য শারীরিক কাজ করে বা একেবারেই ব্যায়াম করে না এবং যাদের ডায়াবেটিসের পারিবারিক ইতিহাস থাকে তাদের ক্ষেত্রে এটি হওয়ার ঝুঁকি থাকতে পারে। এবং যদিও ডায়াবেটিস একটি গুরুতর এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগ, সবসময় মনে রাখবেন যে এটি ভালোভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে।

ডায়েট থেকে ব্যায়ামের পদ্ধতি এবং এর থেকে সম্পূর্ণ জীবনযাপনের নিয়ন্ত্রণ এবং ব্যবস্থাপনা পর্যন্ত, নিশ্চিত করুন যে আপনি একটি সম্পূর্ণ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ এবং ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা তৈরি করতে আপনার ডাক্তারের সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করেন।

 

Loved this article? Don't forget to share it!

Disclaimer: The information provided in this article is for patient awareness only. This has been written by qualified experts and scientifically validated by them. Wellthy or it’s partners/subsidiaries shall not be responsible for the content provided by these experts. This article is not a replacement for a doctor’s advice. Please always check with your doctor before trying anything suggested on this article/website.