Reading Time: 3 minutes

আজকালকার যুগে, আমরা প্রায় নিয়মিতই ক্লান্ত এবং পরিশ্রান্ত হয়ে পড়ি। প্রায় বেশিরভআগ ক্ষেত্রেই সেগুলি ঘটে আমাদের অবলম্বন করা জীবনযাত্রার ধাঁচ বা আমরা যে কাজ করি তার উপর। এবং মানুষজন এটিকে একেবারেই উপেক্ষা করেন বলে, বা এটি সেরকম কোনও সমস্যা নয় বলে উড়িয়ে দেন বলে শেষমেশ এটি এমন সমস্যায় গিয়ে দাঁড়ায় যাতে ডাক্তারবদ্যি করার দরকার পড়ে। তবে, ক্লান্তি এবং পরিশ্রান্তির মধ্যে একটি পার্থক্য আছে।

সাধারণত, ক্লান্তি মানে কাজকর্ম করার উৎসাহ এবং ইচ্ছাশক্তি কমে যাওয়া, এবং আলস্য, পরিশ্রান্ত ও ঘুম ঘুম লাগা। ক্লান্তি বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যার সাথে জড়িত হতে পারে, যার মধ্যে স্লিপ অ্যাপনিয়া, থাইরয়েড বা ইনফ্লুয়েঞ্জা ইত্যাদিও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। যাইহোক, হার্ট ফেলিওর (HF)[1] বা হার্ট বিকল হয়ে যাওয়ার রোগে ভোগা ব্যক্তিদের ক্ষেত্রেও এটি একটি লক্ষণ হিসেবে দেখা দেয়।

HF-এর রোগীদের মধ্যে ক্লান্তির প্রকার এবং উপস্থিতি ব্যক্তিবিশেষে ভিন্ন হয়ে থাকে, যা কোনও ব্যক্তি কীভাবে ওষুধপত্রে সাড়া দিচ্ছেন এবং সেরে উঠছেন তাও নির্ধারণ করতে পারে। সেজন্যই, ক্লান্তির প্রকার এবং HF-এ তার ভূমিকা বুঝলে, তা উচ্চ-ঝুঁকিসম্পন্ন রোগীদের শনাক্ত করা ও রোগটি[2] নিয়ন্ত্রণের যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার পক্ষে সহায়ক হয়ে ওঠে।

হার্ট ফেলিওরের নির্ধারক

যেহেতু ক্লান্তি প্রায় যে কোনও কারণ থেকেই আসতে পারে, তাই সঠিক কোন কারণে ক্লান্তি দেখা দিচ্ছে তা বোঝা ও শনাক্ত করাটা বেশ শক্ত হতে পারে, এবং উপসর্গ হিসেবে  এটিকে উপেক্ষা করা হতে পারে।

যাইহোক, দুটি বেশ জরুরী কারণ খুঁজে পাওয়া গেছে, যা HF[2]–এর সাথে যুক্ত হতে পারে:

  • প্রস্তাবিত হয়েছে যে নিম্ন-মানের দুরারোগ্য হিমোডাইনামিক স্ট্রেস (রক্ত সংবহনের সমস্যা) থেকে স্ক্লেলিটাল মায়োপ্যাথি (এই রোগে ধীরে ধীরে পেশির দুর্বলতা বাড়তে থাকে) হতে পারে, যা থেকে ক্লান্ত অনুভূত হয়
  • অন্যান্য গবেষণায় ক্লান্তির নির্ধারণকারী হিসেবে ব্যক্তিত্বের বিভিন্ন দিক, অবসাদ বা শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যাকে শনাক্ত করা হয়েছে।

হার্ট বিকল হয়ে যাওয়ায় ক্লান্তির ভূমিকা

লক্ষ্য করা গেছে HF–এর রোগীদের মধ্যে ক্লান্তি বেশ লক্ষ্যণীয় উপসর্গ হিসেবে দেখা দেয়।  এটিও জানা গিয়েছে যে HF-এর অগ্রগতি হতে ক্লান্তির উপসর্গগুলিও বাড়তে থাকে। যাইহোক, সব রোগীই একই ধরনের বা মাত্রার ক্লান্তি বা অগ্রগতিতে[2] ভুগবেন তা নয়।

ক্লান্তির উপসর্গ

HF-এর রোগীদের মধ্যে এমন বিভিন্ন উপসর্গ দেখা যায় যা ক্লান্তির সাথে সম্পর্কিত। এগুলির মধ্যে কয়েকটি হল[1]:

  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ব্যাহত হওয়া
  • হৃদস্পন্দন, হজম, শ্বাসপ্রশ্বাস, ইত্যাদির মত যেগুলি আপনি সচেতনভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন না শরীরের সেই শারীরিক কার্যকলাপগুলিতে পরিবর্তন আসা
  • অবস্থা পরিবর্তনের সাথে সাথে হৃদস্পন্দনের হারে পরিবর্তন, যেমন বসা অবস্থা থেকে দাঁড়ালে
  • হেলান দেওয়া অবস্থায় রক্ত চাপ কমে যাওয়া

হার্ট ফেলিওরের ক্ষেত্রে যে যে বিষয়গুলির জন্য ক্লান্তি দেখা দেয়

দেখা গেছে যে এমন বেশ কিছু বিষয় আছে যা HF–এর রোগীদের মধ্যে ক্লান্তি এবং তার তীব্রতা অনুমান করতে পারে। এইগুলির মধ্যে কয়েকটি হল প্রস্তাবিত ওষুধ, সাধারণ স্বাস্থ্য, শরীরচর্চার সামর্থ্য, সঙ্গে অন্য কোনও অসুস্থতা থাকা, বয়স এবং লিঙ্গ[2]

ক্লান্তি এবং হার্ট বিকল হয়ে যাওয়া-সংযোগ

HF[2] সম্পর্কিত গোপন, সমাধান না হওয়া সমস্যাগুলির মধ্যে অন্যতম হল ক্লান্তি। জীবনযাত্রার খারাপ মানের সাথে হার্ট বিকল হয়ে যাওয়ার ঘটনা জড়িত থাকে, এবং ক্লান্তি সেটিতে[3] একটি গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে। যেহেতু হার্ট শরীরের সব কলায় পর্যাপ্ত রক্ত পাম্প করতে পারে না, তাই কিছু অঙ্গপ্রত্যঙ্গ থেকে, বিশেষ করে হাত পায়ের পেশিগুলি থেকে রক্ত ঘুরে আসে এবং মস্তিষ্ক ও হার্টে যায়। ফলস্বরূপ, ক্লান্ত লাগে, সিঁড়ি ভাঙ্গা, বা হাঁটার[4] মত দৈনন্দিন কার্যকলাপ নির্বাহ করাই কোনও ব্যক্তির পক্ষে কষ্টকর হয়ে ওঠে।

সাধারণত, লক্ষ্য করা গেছে যে ক্লান্তির স্তর আপেক্ষিকভাবে কম থাকলে, রোগীদের স্বাস্থ্যও মোটামুটি ভালো থাকে এবং স্বাস্থ্যের জটিলতা কম থাকে বা থাকে না বললেই চলে[2]

ক্লান্তি HF–এর সাথে অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত উপসর্গগুলির মধ্যে একটি, এটি এমনই একটি উপসর্গ যে আপনার হার্টের সমস্যা ধরা না পড়লেও যদি ক্লান্তি এবং সাথে শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যা বা পায়ের পাতা অথবা গোড়ালি ফোলার মত উপসর্গ দেখা দেয়, তাহলে আপনার হার্ট পরীক্ষা করানো উচিত। কারণ, সচরাচর এগুলিই হার্ট বিকল[4] হয়ে যাওয়ার প্রধান উপসর্গ।

এই দুটি বিষয়ের মধ্যে সংযোগ রয়েছে বলে, আমরা কতটা ভালোভাবে এই দুটি সহগামী রোগকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি তা বোঝাটা গুরুত্বপূর্ণ।  শুধু কি HF থেকেই এই ক্লান্তি দেখা দিচ্ছে, নাকি অন্য কোনও রোগের ফলস্বরূপও ক্লান্তি হচ্ছে? আপনার চিকিৎসক হয়তো আপনাকে ক্লান্তির কারণ বুঝতে এবং তা সফলভাবে নিয়ন্ত্রণ করায় সাহায্য করতে পারবেন।

References:

  1. Nelesen R, Dar Y, Thomas K, Dimsdale JE. The Relationship Between Fatigue and Cardiac Functioning. Archives of Internal Medicine [Internet]. 2008 May 12 [cited 2019 Jul 8];168(9):943. Available from: https://jamanetwork.com/journals/jamainternalmedicine/fullarticle/414212
  2. Smith ORF, Kupper N, de Jonge P, Denollet J. Distinct trajectories of fatigue in chronic heart failure and their association with prognosis. European Journal of Heart Failure [Internet]. 2010 Aug [cited 2019 Dec 7];12(8):841–8. Available from: https://onlinelibrary.wiley.com/doi/full/10.1093/eurjhf/hfq075
  3. 6.Drexler, M.D H, Coats, M.D AJS. Explaining Fatigue in Congestive Heart Failure. Annual Review of Medicine [Internet]. 1996 Feb [cited 2020 Apr 26];47(1):241–56. Available from: https://www.annualreviews.org/doi/abs/10.1146/annurev.med.47.1.241
  4. American Heart Association. Warning signs of heart failure [Internet]. [updated 2018 Feb 13; cited 2020 Jan 16]. Available from: https://www.heart.org/HEARTORG/Conditions/HeartFailure/WarningSignsforHeartFailure/-Warning-Signs-for-Heart-Failure_UCM_002045_Article.jsp

Loved this article? Don't forget to share it!

Disclaimer: The information provided in this article is for patient awareness only. This has been written by qualified experts and scientifically validated by them. Wellthy or it’s partners/subsidiaries shall not be responsible for the content provided by these experts. This article is not a replacement for a doctor’s advice. Please always check with your doctor before trying anything suggested on this article/website.